বানান হয়ে ওঠা সময়

একজন মানুষের সাথে যেমন সম্পর্কের উঠা-নামা হয়, ছবির সাথেও সেটা হয় ⚆ আলোকচিত্রী শহিদুল আলম

101
290 views

আজকে ৮৮ দিন ফটোগ্রাফার শহিদুল আলম জেলে । দেশে এবং দেশের বাইরে নোবেল প্রাপ্ত, বুদ্ধিজীবী, লেখকসহ বহু খ্যাতিমান মানুষ শহিদুল আলমের মুক্তি চেয়ে লিখেছেন । বিবৃতি দিয়েছেন । প্রতিবাদে রাস্তায় নেমেছেন । তারপরও উনি জেলেই আছেন । কেউ জানে না কর্মচঞ্চল এই মানুষটির মুক্তি কবে ঘটবে । এই নিয়ে পরিবার, বন্ধু-সজন সকলেই উদ্বিগ্ন । সরকারের কাছে নানান আবেদনেও কাজ হচ্ছে না ।

২০১৫ সালের ১১ জানুয়ারি বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্রে প্রতিপক্ষ সাহিত্য ওয়েবের আয়োজনে ‘ঢাকা সাহিত্য সম্মেলন উদযাপন পর্ব ২’ এ শহিদুল আলম উপস্থিত ছিলেন । সেই দিন সেমিনারে আলাপের শিরোনাম ছিল ⎘ ‘স্মৃতির শহর’ ঢাকা: ছবি ও অক্ষরে⎘ ।

নিজের অভিজ্ঞতার জায়গা থেকে শহিদুল আলম কথা বলেন ছবির সাথে আর্টিস্টের সম্পর্ক নিয়ে । স্পেস, আলো এবং আর্টিস্টের মধ্যে বিশেষ মুহূর্ত ধরা পড়া নিয়ে । মুক্তিযুদ্ধের সময় তখনকার পৃথিবীর বিখ্যাত ফটোগ্রাফাররা যে বাংলাদেশে আসছিলেন অথচ তারা কি কি কাজ করেছেন সেইসব ইতিহাস হদীস না জানা, না লিখা নিয়াও আক্ষেপ নিয়ে কথা বলছিলেন । বলছিলেন, ছবির মাধ্যমে মানুষ তার প্রেমকে পৌঁছে দেয় । কোথায় ? ইত্যাদি ইত্যাদি নিয়ে ।

পাঠক আর্টিস্ট হিসাবে শহিদুলের বিশালতা এই ২৭ মিনিটের ভিডিও আলাপে আপনারা টের পাবেন । শহিদুল নিজের কাজ এবং প্রতিষ্ঠান তৈয়ার করে বাংলাদেশের ফটোগ্রাফিতে বিপ্লব ঘটিয়েছেন । তৈয়ার করেছেন আন্তর্জাতিক মানের অসংখ্য আর্টিস্ট । দেশ নিয়ে মনের গহীনে গভীর ভাবনা না থাকলে কারো পক্ষে এই কাজ অসম্ভব । এইটা রাষ্ট্রকে গঠনের প্রাকটিক্যাল কাজ । লম্বা সময় ধরে নানান প্রতিকুলতা পার করে এই কাজ বাংলাদেশে খুব কোন লোক করেছেন, করছেন ।

শহিদুলের চিন্তার-কাজের সীমাবদ্ধতা থাকতে পারে । আপনি তার সাথে ডিফার করতে পারেন । সেইসবের ক্রিটিকাল পর্যালোচনা করতে পারেন । এইভাবেই একটা দেশে গণতান্ত্রিক সংস্কৃতি গড়ে উঠে । দেশ আগায় । আমার এখন উল্টা পথে হাঁটছি !

আপাতত আমরা শহিদুলের এই বিপদের দিনে তার নিজের কাজের এই অভিজ্ঞতা শুনার মধ্যদিয়ে শহিদুলকে বারবার স্মরণ করব এবং দাবী জানাব মুক্তির । আশা করি সরকার জনগণের কথা শুনবেন । এমন কর্মমুখর মানুষের দীর্ঘ বন্দিত্ব সকলেরই লস ।

ফটোগ্রাফির বাইরেও শহিদুল আলম মানবাধিকার কর্মী এবং সাংবাদিক হিসাবে সারা বিশ্বে পরিচিত । তার অভিজ্ঞতার ঝুলিতে বাংলাদেশের পজিটিভ ইতিহাস নির্মাণের অনেক সম্পদ রয়ে গেছে । আমরা সেইসবের সামান্য কিছু ধরে রাখতে গ্রেফতারের বছরখানেক আগেও শহিদুল আলমের সাথে প্ল্যান করছিলাম উনার একটা বড় বায়োগ্রাফিকাল ইন্টার‌ভিউ করব। বাংলাদেশের ফটোগ্রাফারির ইতিহাস লিখার ক্ষেত্রে সেইসব অভিজ্ঞতা খুবই গুরুত্বপূর্ণ । সেইটা মুক্ত শহিদুলের সাথে নিশ্চয় একদিন হবে।

✍ মোহাম্মদ রোমেল


You Might Be Interested In

LEAVE A COMMENT